ইসলাম শিক্ষা দিতে পারবে তুর্কী ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, জার্মান আদালতের রায়!

শিক্ষা ইসলামের প্রাথমিক মৌলিক বিষয়াবলির অন্তর্ভুক্ত। আদি শিক্ষক হলেন স্বয়ং আল্লাহ তাআলা। তাই ফেরেশতারা বলেছিলেন, ‘হে আল্লাহ, আপনি পবিত্র! আপনি যা শিখিয়েছেন, তা ছাড়া আমাদের আর কোনো জ্ঞান নেই; নিশ্চয়ই আপনি মহাজ্ঞানী ও কৌশলী।

নতুন খবর হচ্ছে, টার্কিশ-ইসলামিক ইউনিয়ন ফর রিলিজিয়াস অ্যাফেয়ার্স (ডিআইটিআইবি) জার্মানিতে বসবাসরত মুসলিমদের ইসলাম ধর্ম শিক্ষা দিতে পারবে। শুক্রবার জার্মানির একটি আদালত এই রায় দিয়েছে। খবর আনাদোলু এজেন্সি।‘টার্কিশ-ইসলামিক ইউনিয়ন ফর রিলিজিয়াস অ্যাফেয়ার্স’ বা ডিআইটিআইবি জার্মানিতে তুর্কি অভিবাসীদের নিয়ে গঠিত একটি বড় মুসলিম সংগঠন।

এর সদস্য সংখ্যা দুই লাখের বেশি। সংগঠনটির সঙ্গে সম্পৃক্ত রয়েছে ৯০০টি মসজিদ। তুরস্কের এই সংস্থাটি মূলত ধর্মীয় কাজ-কর্মের দায়িত্ব পালন করলেও বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা বিশেষ করে নারী ও যুব সমাজের নানা রকম অসুবিধা নিয়ে কাজ করে তারা। খবরে বলা হয়েছে, গত বছর জার্মানির হেসেন প্রদেশে টার্কিশ-ইসলামিক ইউনিয়ন ফর রিলিজিয়াস অ্যাফেয়ার্সের উপর ধর্ম শিক্ষাদানে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হয়।

কিন্তু শুক্রবার জার্মানির উইসবাডেনের প্রশাসনিক আদালত তুরস্কের ইসলামিক ইউনিয়নকে ধর্ম শিক্ষাদানে বাধা প্রদান বিধিসম্মত নয় বলে রায় দিয়েছে। এর আগে হেসেন প্রদেশের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এই গোষ্ঠীকে ধর্ম শিক্ষাদানে বাধা দেয়।আদালতের রায়ে বলা হয়েছে, ডিআইটিআইবি গ্রুপ পুনরায় ২০১৩-২০১৪ এবং ২০১৯-২০২০ সালের মতো হেসেনে ধর্ম শিক্ষা দিতে পারবে।

আদালতের রায়ের পর ডিআইটিআইবিরর হেসেন রাজ্য শাখা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। এক বিবৃতিতে টার্কিশ-ইসলামিক ইউনিয়ন ফর রিলিজিয়াস অ্যাফেয়ার্স জানিয়েছে, তারা পুনরায় হেসেনের মুসলিম ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক এবং অভিভাবকদের জার্মানিতে মৌলিক অধিকারসহ ইসলাম ধর্ম শিক্ষা দেবেন।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*