ইসরাইলের নাগরিক হতে বহু ফিলিস্তিনির আবেদন!

ইস’রাইলের নাগরিক হতে আবেদন করেছেন বহু ফিলিস্তিনি। ফিলিস্তিনিদের মধ্যে যারা ইস’রাইলের নাগরিকদের বিয়ে করেছেন তারা দেশটির নাগরিকত্ব পাবার জন্য এ আবেদন করেছেন। এর আগে তারা ই’সরাইলের নাগরিকত্ব আইনের কারণে এ আবেদন করতে পারতেন না। এ সপ্তাহে ই’সরাই’লের সরকার নাগরিকত্ববিষয়ক ওই বি’তর্কিত আইনটির সময় বাড়িয়ে পুনরায় চালু করতে ব্যর্থ হয়।

এর পরপরই বহু ফিলি’স্তিনি ইস’রাইলের নাগরিক হতে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আও’তায় আবেদন করছেন। বিভিন্ন এনজিও ও মানবাধিকার সংগঠন তাদের আশ্রিত ব্য’ক্তিদের জন্য ই’সরাই’লের নাগরিকত্ব অথবা স্থায়ী বসবাসের অনুমতি পাওয়ার জন্য আবেদন করেছে। এসব এনজিওর মধ্যে ‘হ্যামো’কেড সিভিল রাইট গ্রুপ’ নামের একটি মা’নবাধিকার গ্রুপও আছে, যারা এ সেবা দিচ্ছে।

তারা অন্যান্য সংগঠন ও ব্যক্তিকে নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য আবেদন করতে বলছে ও উৎসাহিত করছে। ইসরাইলের নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য আবেদন করার মাধ্যমে ১৩ হাজার ফিলিস্তিনি ইস’রাইলে’র নাগরিকত্ব বা স্থায়ী বসবাসের অনুমতি পাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এসব ফিলিস্তিনিরা ইস’রাই’লের আরব অথবা ইহুদি নাগরি’ককে বিয়ে করেছিলেন। তারা ইসরা’ইলে’র পরিবার একত্রীকরণ আইনের আওতায় এসব নাগরিকত্ব পেতে যাচ্ছেন।

এর আগে ২০০৩ সালের করা এক কুখ্যাত আইনের আওতায় ফি’লিস্তিনিরা ইস’রাই’লের নাগরিকত্ব পেতেন না। এ সপ্তাহে ই’সরা’ইলের সর’কার নাগরিকত্ববিষয়ক ওই বিতর্কিত আইনটির সময় বাড়িয়ে পুনরায় চালু করতে সংসদে (নেসেট) পাস করতে ব্যর্থ হয়। নতুন প্রধানমন্ত্রী বেনেটের এই ব্যর্থতার ফলে ফিলিস্তিনিদের ইসরাইলের নাগরিকত্ব পেতে আর কোনো বাধা নেই।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*