ইরানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে যা বললেন হামাস প্রধান

হামাস যো’দ্ধাদের অস্ত্র, প্রযুক্তি ও অর্থ সহায়তা দেওয়ায় ইরানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাসের রাজনৈতিক নেতা ইসমাঈল হানিয়া। ফিলিস্তিনিদের বিজয়ে ইরান সবচেয়ে বড় অংশীদার বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

শুক্রবার হামাস ও ইসরাইলের মধ্যে যুদ্ধবিরতির ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পর গাজায় আয়োজিত এক জনসভায় দেয়া ভাষণে তিনি এ কথা বলেন। ইসমাঈল হানিয়া বলেন, গাজা যুদ্ধে ইসরাইলের পরাজয় ভবিষ্যতে বড় পরিণতির দিকে যাবে। জেরুজালেমই হলো লড়াইয়ের মূল কারণ।

হামাস প্রধান বলেন, ইহুদিবাদীদের আগ্রাসন মোকাবেলা, জেরুজালেম, আল-কুদস ও আল-আকসার পবিত্রতা রক্ষায় আকুণ্ঠ সমর্থন দিয়েছে ইরান। তারা আমাদের বিজয়ের সবচেয়ে বড় অংশীদার। আমরা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

আশা করি- মধ্যপ্রাচ্যের অন্য দেশগুলোও দ্রুত গাজার মুসলিম ভাইদের সহায়তায় এগিয়ে আসবে। সংঘাতে প্রতিরোধ সংগঠনগুলোকে আর্থিক ও সামরিক পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়ার জন্য ইরানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান ইসমাইল হানিয়া।

বৃহস্পতিবার ইসরাইল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে। শুক্রবার রাত ২টা থেকে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হয়। ইসরাইলি সংবাদমাধ্যম হারেজৎ জানায়, ২০১৪ সালের পর এটিই ছিল সবচেয়ে বড় যুদ্ধ। মিসরের মধ্যস্থতায় এ যুদ্ধবিরতির পরও আল আকসা মসজিদে শুক্রবার মুসল্লিদের ওপর হা’ম’লা চালিয়েছে ইসরাইলি পুলিশ।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*