ইউনিলিভারকে ইসরায়েলের কড়া হুঁশিয়ারি!

ইস’রায়ে’লের প্রধানমন্ত্রী নেফতালি বেনেট ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার পক্ষের অ্যাকটিভিস্টরা আইসক্রিম বিক্রি না করার সিদ্ধান্তকে ‘ইহুদি’বি’দ্বেষ’ আখ্যা দিয়ে ‘চরম প্রতিক্রিয়া’ দেখানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। সম্প্রতি বিবিসি জানায়, ইসরায়েল দখলকৃত পশ্চিম তীরের বসতিতে বেন অ্যান্ড জেরিস আইসক্রিম বিক্রি করবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে ইউনিলিভার।

তাই জনপ্রিয় বেন অ্যান্ড জেরিস ব্র্যান্ডের আইসক্রিম বিক্রি নিয়ে চরমে উঠেছে ইসরায়েল ও ইউনিলিভারের দ্বন্দ্ব। বেন অ্যান্ড জেরিস জানায়, নিজেদের মূল্যবোধের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ হওয়ায় পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে তাদের পণ্য বিক্রি করবে না। এদিকে, ইস’রায়ে’লের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়ার লাপিড বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ৩৫টি রাজ্যে অ্যান্টি-বিডিএস আইন রয়েছে। তারা সেখানে ইউনিলিভারের সহযোগী প্রতিষ্ঠানটির বিরু’দ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলবে।

১৯৬৭ সালের যু’দ্ধে’র পর পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরু’জালেমে আদি বাসিন্দাদের উ’চ্ছে’দ করে তৈরি ১৪০টি বসতিতে ৬ লাখের বেশি ইহু’দি বসবাস করে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বেশির ভাগ অংশই একে আইনের ল’ঙ্ঘন করে বিবেচনা করে আসছে।

প্রসঙ্গত, ইস’রায়েলে বেন অ্যান্ড জেরিস খুবই জনপ্রিয়। বিশেষ করে ইহু’দি উৎসব ও জাতীয় দিনে বিশেষ স্বাদ নিয়ে বাজারে আসে আইসক্রিমটি। বেন অ্যান্ড জেরিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইসরায়েলি ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে তাদের অংশীদারি চুক্তি আগামী বছর শেষ হচ্ছে। এরপর এটি অন্যভাবে ইসরায়েলে থাকবে।

বেন অ্যান্ড জেরিসের সিদ্ধান্তকে ফিলিস্তিনিরা সমর্থন করেছে। তাদের পক্ষে রয়েছে বিডিএসের মতো জনপ্রিয় বয়কট গ্রুপ। তবে ইসরায়েল সরকারের উঁচু মহল থেকে শুরু করে সাধারণ ইহুদিরা কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে। তারা বেন অ্যান্ড জেরিস বয়কটেরও ডাক দিয়েছে। অনেক সুপার মার্কেট থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে এ ব্র্যান্ডের আইসক্রিম।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*