ইউক্রেন সীমান্তে আরও ৪০,০০০ সৈন্য পাঠাচ্ছে ন্যাটো

এবার ইউক্রেন আগ্রাসনকে কেন্দ্র করে রাশিয়ার বিরুদ্ধে পশ্চিমা নেতৃত্বাধীন কূটনৈতিক তৎপরতা ব্যাপকভাবে জোরদার হয়েছে। বৃহস্পতিবার ন্যাটো, জি৭ এবং ইইউ নেতারা ব্রাসেলসে বৈঠকে মিলিত হন। গতকালের শীর্ষ বৈঠকে পূর্ব ইউরোপে ন্যাটো সামরিক জোটের দেশগুলোর নিরাপত্তা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ন্যাটো মহাসচিব জেনস স্টলটেনবার্গ বলেছেন, স্লোভাকিয়া, হাঙ্গেরি, বুলগেরিয়া এবং রোমানিয়ায় চারটি নতুন সৈন্যদল পাঠানো হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার ন্যাটো নিশ্চিত করেছে যে, মোট ৪০ হাজার সেনার চারটি নতুন ‘ব্যাটেল গ্রুপ’ স্লোভাকিয়া, হাঙ্গেরি, বুলগেরিয়া এবং রোমানিয়াতে পাঠানো হবে।

এ ব্যাপারে জেন্স স্টোলটেনবার্গ বলেন, দীর্ঘমেয়াদী সংঘাতের জন্য ন্যাটো প্রস্তুত। বৃহস্পতিবার বৈঠকের পর জোটের এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, ইউরোপে ‘এক প্রজন্মের মধ্যে সবচেয়ে বড় নিরাপত্তা সংকট মোকাবেলায়’ এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেছেন, ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানের পর ইউরোপে নিরাপত্তার মানচিত্র আমূল বদলে গেছে।

এ বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ন্যাটো জোট আগের যে কোনো সময়ের চেয়ে এখন ঐক্যবদ্ধ। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন যা আশা করেছিলেন, এটা সম্পূর্ণ তার বিপরীত বলেও মন্তব্য করেছেন বাইডেন। তিনি এ ঐক্য অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান যাতে মস্কোর ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞাগুলো দীর্ঘস্থায়ী হয়।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*