‘ইউক্রেনে রাশিয়ার কৌশল ব্যর্থ হয়েছে’

ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়ার প্রাথমিক কৌশল ব্যর্থ হয়েছে এবং পরবর্তী পদক্ষেপের বিষয়ে রুশ বাহিনীকে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। একজন শীর্ষ সামরিক বিশ্লেষক বিবিসিকে এ কথা বলেছেন।ইউনিভার্সিটি অব সেন্ট অ্যান্ড্রুজের স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ বিষয়ের অধ্যাপক ফিলিপস ও’ব্রায়ান বলেন, অনেক বিদেশি পর্যবেক্ষক ‘সহজ বুদ্ধিবৃত্তিক পথ’ বেছে নিয়ে বলেছিলেন, যুদ্ধে রুশ বাহিনীর আধিপত্য বজায় থাকবে।

তিনি বলেন, এটি ছিল রাশিয়ার সামর্থ্য সম্পর্কে একটি ‘ভুল মতামত’ যাতে রুশ সেনারা ঝুঁকি নিতে চায় কি না তা বিবেচনায় নেওয়া হয়নি। একই সময়ে ইউক্রেনের সামর্থ্যকে অবমূল্যায়ন করা হয়েছে। অধ্যাপক ও’ব্রায়ান বলেন, ২০১৪ সালে রাশিয়া ক্রিমিয়া উপদ্বীপকে নিজেদের সঙ্গে যুক্ত করে নেওয়ার পর থেকেই যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছিল ইউক্রেন। তারা ‘রুশ একনায়কত্বের অধীনে’ থাকতে চায়নি।

রাশিয়াকে এখন তারা আগ্রাসনের মাত্রা বাড়াবে না কমাবে সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে বলে মনে করেন অধ্যাপক ও’ব্রায়ান। তাঁর মতে, ‘আগ্রাসনের মাত্রা কমানোই হবে সবচেয়ে যুক্তিসঙ্গত কাজ। কিন্তু রাশিয়াকে দেখে মনে হচ্ছে না, তারা সেটি করতে ইচ্ছুক। ’

সেন্ট অ্যান্ড্রুজ বিশ্ববিদ্যালয়ের এ অধ্যাপক মনে করেন, আগ্রাসন বাড়ানোর অর্থ হবে সেনাবাহিনীকে শুরু থেকে পুনর্গঠন করা অথবা রাসায়নিক, পারমাণবিক বা জীবাণু অস্ত্রের প্রয়োগ করা। পরিশেষে ফিলিপস ও’ব্রায়ানের মূল্যায়ন: ‘রাশিয়া হামলার মাত্রা বাড়ানো বা কমানো যে কোনোটাই করতে পারে। তবে এখন তাদের যা আছে তাতে কাজ হবে না। ’ সূত্র: বিবিসি

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*