আসামি ধরতে গিয়ে উল্টো মারধরের শিকার পুলিশ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ওয়ারেন্টের আসামি ধরতে গিয়ে মা’রধ’রের শিকার হয়েছেন তিন পুলিশ সদস্য। শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাত তিনটার দিকে উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাঁচরুখী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিকে পুলিশ সদস্যদের মা’রধ’রের পর আড়াইহাজার থানা পুলিশের কয়েকটি টিম অভিযান চালিয়ে রোববার ভোরে (২১ ফেব্রুয়ারি) এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পাঁচ যুবককে গ্রে’ফতার করেছে।

গ্রেফতার যুবকেরা হলেন- উপজেলার দুপ্তারা ইউনিয়নের গীর্দা দক্ষিণপাড়া এলাকার আব্দুল আলীর ছেলে শাহীন মিয়া (২০), সোলমানের ছেলে সজিব (২২), বাজভী তাঁতীপাড়া ওয়াজুল হকের ছেলে আজিজুল হক (২০) একই ইউনিয়নের কুমারপাড়া এলাকার দ্বীন মুহাম্মদের ছেলে মাহাবুল ভূঁইয়া (২২) ও গোপালদী পৌরসভাধীন সোনাকান্দা এলাকার মোহাম্মদ আলীর ছেলে মাসুদ মিয়া (২৪)।

আর মা’রধ’রের শিকার পুলিশ সদস্যরা হলেন- আড়াইহাজার থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) হালিম খান, কনস্টেবল নাজমুল ও আমান উল্লাহ। আ’হ’ত এএসআই হালিম খান বলেন, শনিবার গভীর রাতে ওয়ারেন্টের আসামি ধরতে বের হলে পাচঁরুখীতে তিনজনকে দেখতে পাই। তাদের পরিচয় জানতে চাইতেই তারা হাতে মাদকসহ থাকা একটি বক্স ফেলে দৌঁড় দেয়।

এ সময় পাশেই আনন্দ ভ্রমণে যাওয়া একটি বাসে উঠে তারা ডাকাত বলে চিৎকার দেয়। তখন বাস থেকে নেমে এসে লোকজন আমাদের ওপর হা’ম’লা চালায়। পুলিশ জানায়, স্থানীয় শামীম ও কাউসারের নেতৃত্বে পিকনিকের ওই বাসটি মাধবপুর যাওয়ার কথা ছিল।

হা’ম’লার পর আ’হ’ত পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় আড়াইহাজার থানায় মা’মলা দায়ের হয়েছে। অভিযান চালিয়ে এখন পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। বাকিদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *