আগামীকাল সারাদিন থাকবে বৃষ্টি

মৌসুমী বায়ু এখন বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলে চলে এসেছে। এর প্রভাবে রবিবার (৬ জুন) দিনভর বৃষ্টি হয়েছে। সারাদিনের থেমে থেমে বৃষ্টিতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছিল নগরবাসী। আগামীকাল সোমবারও (৭ জুন) একই থাকবে আবহাওয়া পরিস্থিতি।

আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান বলেন, বাংলাদেশের সীমানায় প্রবেশ করেছে মৌসুমী বায়ু। শুরু হয়ে গেল বর্ষার বৃষ্টি। এখন দক্ষিণ পশ্চিমের দিকে বেশি বৃষ্টি হয়েছে। এটি আরও এগিয়ে আসবে। আগামী কয়েকদিন আকাশের ভারী মেঘ থাকবে। ফলে অনেক এলাকায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

বৃষ্টিতে রবিরবার সকালে অফিসগামী সাধারণ মানুষ এবং সন্ধ্যায় অফিস থেকে ফেরার সময় মানুষ চরম ভোগান্তিত পড়ে। সকালে যেমন যানবাহনের সংকট দেখা দেয়। তেমনি বিকেলে যানবাহন সংকটের সাথে যুক্ত হয় জলাবদ্ধতা, কদমাক্ত রাস্তায় চলাচল। জলাবদ্ধতার ফলে অনেক এলাকায় যুক্ত হয় যানজট। সব মিলিয়ে মহা ভোগান্তির মধ্যে আজকের দিন কাটিয়েছে নগরবাসী। আগামীকালও একই অবস্থা থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

গত ২৪ ঘন্টায় দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে সীতাকুণ্ডে ১০০ মিলিমিটার। এছাড়া চট্টগ্রামে ৯৮, সন্দ্বীপে ৯৭, পটুয়াখালীতে ৯১, ফেনী ৮২, কক্সবাজার ৭৬, কুতুবদিয়ায় ৬১, মাইজদীকোটে ৫১, চাঁদপুরে ৫০, ভোলা ও রাঙামাটিতে ৪৫, কুমিল্লায় ৪২, বগুড়ায় ২৬, ফরিদপুরে ২৫, টাঙাইলে ২১, কুমারখালিতে ১৭, ঢাকায় ১৬, শ্রীমঙ্গলে ১৪, সাতক্ষীরা ও গোপালগঞ্জে ১৩, বরিশালে ১২, নিকলি ১১, রাজশাহী ও মাদারিপুরে ১০,খুলনা ও তাড়াশে ৯,যশোরে ৬, চুয়াডাঙ্গায় ৫, রাজারহাট ও ঈশ্বরদীতে ৩, খেপুপাড়া ও সিলেটে ২ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমী বায়ু চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, ঢাকা বিভাগের পূবাঞ্চল পযন্ত চলে এসেছে। এটি আরও এগিয়ে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ার অবস্থার জন্য আবহাওয়ার অনুকূল পরিস্থিতি রয়েছে। এর প্রভাবে ঢাকা, ময়মনসিংহ, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী ভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্র সহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের পূর্বাঞ্চলে মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*