অভিষেক ম্যাচ খেলেই আজীবন নিষিদ্ধ ইংলিশ ক্রিকেটার

ক্রিকেটের মক্কাখ্যাত লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অভিষেক, নিজের প্রথম ম্যাচেই বল হাতে ৭ উইকেটের পাশাপাশি দলকে উদ্ধার করা ৪২ রান- ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট খেলতে নামা একজন খেলোয়াড়ের জন্য উদ্ভাসিত পারফরম্যান্সই বটে। কিন্তু এই পারফরম্যান্স করেও উচ্ছ্বাসের সুযোগ নেই ইংল্যান্ডের পেসার ওলি রবিনসনের।

কেননা নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে খেলা হবে না ২৭ বছর বয়সী এ পেসারের। প্রায় আট বছর আগে করা মুসলিম ও না;রী বি;দ্বে;ষী টুইটের কারণে রবিনসনকে অনির্দিষ্টকালের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নি;ষি;দ্ধ করেছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। যার ফলে পরের ম্যাচটি খেলা হবে না তার।

রোববার এক বিবৃতিতে এ শাস্তির কথা জানিয়েছেন ইসিবির প্রধান নির্বাহী টম হ্যারিসন। সেই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ইংল্যান্ড ও সাসেক্সের বোলার ওলি রবিনসনকে সবধরনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নি;ষি;দ্ধ করা হয়েছে। এখন তার ২০১২ ও ২০১৩ সালে করা টুইটগুলোর বিষয়ে যথাযথ ত;দ;ন্ত করা হবে এবং সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে নেয়া হবে পরবর্তী সিদ্ধান্ত।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হলেও, ঘরোয়া তথা কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে রবিনসন। এ কথা জানিয়ে বিবৃতিতে আরও লেখা হয়েছে, ‘নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এজবাস্টন টেস্টে তাকে পাওয়া যাবে না। শিগগিরই ইংল্যান্ড ক্যাম্প ছেড়ে যাবেন রবিনসন এবং নিজের কাউন্টিতে (সাসেক্স) যোগ দেবেন।’ রবিনসনের এই শাস্তির মূলে, প্রায় আট বছর আগে সোশ্যাল মিডিয়া তথা টুইটারে তার করা একাধিক বিতর্কিত পোস্ট।

প্রচারের আলো থেকে বেশ দূরে থাকা তরুণ রবিনসন নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে মুসলিম এবং নারীদের নিয়ে বেশকিছু বর্ণ ও লিঙ্গ বৈষম্যমূলক মন্তব্য করেছিলেন। আট বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পা রাখতেই হঠাৎ করে তার সেই বিতর্কিত পোস্টগুলি সামনে চলে আসে। ২০১২ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৩ সালের জুন পর্যন্ত করা তার পোস্টগুলো শুধু সামনে আসাই নয়, রীতিমত ভাইরাল হয়ে গেছে।

তার ওইসব মন্তব্যের মধ্যে ছিল মুসলিমদের বিরুদ্ধে বি;দ্বে;ষ;, তাদেরকে স;;ন্ত্রা;;সী হিসেবে চিত্রায়িত করা, নারীদের নিয়ে চরম অ;;ব;;মা;ননাকর কথা-বার্তা এবং এশিয়ান ঐতিহ্য নিয়ে নানা ধরনের ক;টা;ক্ষমূলক কথা-বার্তা। রবিনসনের বয়স ছিল তখন ১৮-১৯। ওই সময় তিনি লেস্টারশায়ার, কেন্ট এবং ইয়র্কশায়ারের দ্বিতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলতেন।

ক্রিকেটের সর্বোচ্চ স্তরে খ্যাতির পাশাপাশি যে প্রতিটা পদক্ষেপে সবার নজর থাকে তা প্রথম দিনেই নিজের কু;রু;চিকর পোস্টের কারণে ভালভাবে টের পেলেন রবিনসন। তীব্র বিতর্কের মাঝে প্রথম দিনের খেলা শেষে ক্ষমা চাইতেও বাধ্য হলেন ২৭ বছর বয়সী এই বোলার। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আমি নিজের এমন মন্তব্যের জন্য খুবই লজ্জিত। আমার পরিস্থিতি তখন যেমনই হোক,

বিচার বিবেচনা না করে এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্যের কোনোরকম ব্যাখা হয় না। সে সময় থেকে আমি মানুষ হিসেবে অনেকটাই পরিপক্ক হয়েছি এবং আমি নিজের ভুলের জন্য লজ্জিত। আমার কথায় আ;ঘা;তপ্রাপ্ত সবার কাছে আমি ক্ষমা চাচ্ছি।

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*