অবসরের ঘোষণা দিলেন মাহমুদুল্লাহ

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে মাহমুদুল্লাহ অন্যতম। এই পর্যন্ত অনেক রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার। টেস্ট খেলা থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন ক্রিকেটার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। শুক্রবার (৯ জুলাই) সকালে টিম মিটিংয়ে এমন ঘোষণা দিয়েছেন বলে বিসিবি সূত্রে জানা গেছে।

টেস্ট থেকে আগে থেকেই উপেক্ষিত ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। প্রত্যেক সিরিজের আগে আলোচনায় থাকতেন, কিন্তু স্কোয়াডে থাকতো না তার নাম। এবার জিম্বাবুয়ে সিরিজের দলে সুযোগ হয় তাও দল ঘোষণার পরে। তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের চোট সমস্যার কারণে।

এরপরও নিজেকে ‘লাকি’ ভাবতে পারেন মাহমুদউল্লাহ। অন্তত সুযোগটা তো হলো। এই সুযোগটা অবশ্য দলে সুযোগ পাওয়ায় নয় অবসর ঘোষণার আনুষ্ঠানিকতা বলেই লাকি ভাববেন নিশ্চয়ই মাহমুদউল্লাহ। কেননা ভাগ্যজোরে পাওয়া সুযোগটা কেন হেলায় নষ্ট করবেন তিনি!

তাইতো ১৬ মাস পর টেস্ট ক্রিকেটে ফেরার উপলক্ষটা রাঙিয়ে নিলেন তিনি ক্যারিয়ার ১৫০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে। আর সিদ্ধান্ত নিলেন অপরাজিত থেকেই বিদায় বলার।যদিও এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে জানাননি মাহমুদউল্লাহ। তবে সুত্র বলছে, মাহমুদউল্লাহ এই সিরিজের পরই অবসরের সিদ্ধান্ত জানাবেন। মৌখিকভাবে অবসরের কথা জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে সবশেষ খেলেছিলেন টেস্ট ম্যাচ। এরপর আর নামা হয়নি টেস্ট জার্সিতে। খেলা তো দূরে থাক, স্কোয়াডেও জায়গা হচ্ছিল না এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানের। তার মতো ক্রিকেটারের টেস্টে না থাকায় সমালোচনাও হয়েছে বেশ। তবে বিসিবির নির্বাচক কিংবা টিম ম্যানেজমেন্ট ‘বাতিলের খাতায়’ ফেলে দিয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহকে। সেই তিনিই এবার নিজেকে গুটিয়ে নিচ্ছেন নির্বাচকদের খাতা থেকেই।

Sharing is caring!