অবশেষে শেখ হাসিনার দ্বারস্থ হলেন বিএনপি।

বিএনপি (BNP)-র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য অনেক আইনি লড়াই হয়েছে। মাঝে-মধ্যে ছোটখাটো আন্দোলন করে কোনও সুবিধা আদায় করতে ব্যর্থ হয়েছে বিএনপি। তাই এবার শাসকদল আওয়ামি লিগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বললেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বেশ কিছুদিন ধরেই দুর্নীতির দায়ে সাজা খাটছেন বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। সম্প্রতি তাঁর প্যারোলে মুক্তির বিষয়ে আলমগীর ফোন করেছিলেন কাদেরকে। শুক্রবার দুপুরে রাজধানী ঢাকার ধানমন্ডিতে আওয়ামি লিগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত একটি সংবাদিক বৈঠকে এ কথা জানান ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘মির্জা ফখরুল ইসলাম তাঁদের দলের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়েছেন। এবিষয়ে আমাকে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জানাতেও বলেন। বিষয়টি আমি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছি। তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া যে মামলায় কারাগারে রয়েছেন তা দুর্নীতির মামলা।

রাজনৈতিক মামলা হলে সরকার বিবেচনা করতে পারত। কিন্তু, এই বিষয়টা এখন সম্পূর্ণ আদালতের হাতে। বিএনপি এবং খালেদা জিয়ার আত্মীয়রা বিচ্ছিন্নভাবে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর মুক্তির বিষয়ে বলছেন। কিন্তু, তাঁরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে কোনও আবেদন এখনও করেননি।’

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *