অবরোধ করে পালিত হচ্ছে হরতাল, তীব্র যানজট

আজ সোমবার ২৮ মার্চ সকালে থেকে টায়ার জ্বালিয়ে ও রাস্তার পাশের ব্যানার-পোস্টারে অগ্নিসংযোগ করে ব্যারিকেড তৈরি করে শাহবাগ অবরোধ করে রেখেছে বাম গণতান্ত্রিক জোটের ছাত্র সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। আজ সকাল পৌনে সাতটার দিকে তারা এ এলাকার সব রাস্তা বন্ধ করে দেয়।

সকালের অন্য সড়কগুলোতে তেমন যানবাহনের চাপ না থাকলেও সায়েন্সল্যাব থেকে শাহবাগ সড়কে যানবাহনে জট সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে সড়ক অবরোধ করে হরতালের পক্ষে বক্তব্য দিচ্ছেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের ছাত্র নেতারা। পৌনো আটটার দিকে একজন একটি বাকেটে করে পানি নিয়ে সড়কে ব্যানার-পোস্টার জড়ো করে লাগানো আগুন নেভাতে এলে তেড়ে আসেন ছাত্ররা।

এ সময় উপস্থিত পুলিশ সদস্যরা এগিয়ে আসেন। আগুন নেভাতে আসা ব্যক্তির পক্ষে অবস্থান নেন তারা। এ সময় একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে আগুন কেন লাগানো হয়েছে তা জানতে চেয়ে তাদের শাসাতে দেখা যায়। দেশে নিত্যপণ্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধি প্রতিরোধ এবং গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির দাম বাড়ানোর তৎপরতা বন্ধের দাবিতে আজ সারা দেশে আধা বেলা হরতাল পালনের ডাক দেয় বাম গণতান্ত্রিক জোট।

এ হরতালে নৈতিক সমর্থন জানিয়েছে বিএনপি। জোটের নেতারা বলেছেন, দুর্গতি চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছে যাওয়ায় মানুষ হরতালে সমর্থন দেবে। সরকারের পক্ষ থেকে যদি কোনো বাধা না দেওয়া হয়, তাহলে শান্তিপূর্ণভাবে হরতাল কর্মসূচি পালন করা সম্ভব হবে।

এর আগে গতকাল রবিবার সংবাদ সম্মেলনে জোটের সমন্বয়ক সাইফুল হক বলেন, ‘সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মানুষকে রক্ষার এ হরতালে আমরা আশা করব সব ধরনের প্রতিষ্ঠান, দোকানপাট, শপিং মল, পরিবহন চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্স ও জরুরি পরিষেবা হরতালের আওতামুক্ত থাকবে।’

Sharing is caring!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*