অত্যাধুনিক চীনা ড্রোন সাবমেরিনের গোপন কর্মসূচি!

মানুষের নির্দেশনা ছাড়াই শ’ত্রুপ’ক্ষের সাবমেরিনকে শনা’ক্ত, অনু’সরণ ও হা’ম’লা চা’লাতে পারে- এমন একটি চীনা ড্রো’ন সাবমেরিনের তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। গত সপ্তাহে অ’জ্ঞাত ওই ড্রো’নটির দূর্লভ চিত্র প্রকাশ করা হয়। চীনা মিলিটারি সিক্রেট প্রজেক্টের অর্থায়নে একটি দক্ষ গবেষক দল ড্রো’নটি তৈরি করেছে। মনে করা হচ্ছে, এক দশক ধরেই সেটি তাইওয়ান উপকূলে অবস্থান করছে।

চীন কেন এমন ড্রো’ন সাব’মেরিনের তথ্য প্রকাশ করেছে, সে ব্যাপারটি অনিশ্চিত। তবে আন্দাজ করা যায়, তাইওয়ান উপকূলে সাম্প্রতিক উ’ত্তেজনার কারণেই এটি প্রকাশ করা হয়েছে। চীন যদি জোর করে তাইওয়ান উপকূল দখলে নিতে চায় তাহলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও জাপান সেনারা হস্তক্ষেপ করতে পারে।

চীনের শীর্ষ সাবমেরিন গবেষণা ইনস্টিটিউট হার্বিন ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক লিয়াং গুওলং ও তার সহকর্মীরা বলছেন, ‘এই রো’বোটিক ড্রো’নগুলো এখন বে’শিরভাগ স্বতন্ত্রভাবে কাজ করছে। তবে প্রযুক্তিগত উন্নয়নের ফলে এটি টহল দিতে পারে।’

এসব ড্রো’ন সাব’মেরিনের একটি ধরন সমুদ্রের একেবারে তলদেশে পৌঁছাতে পারে এবং সংঘর্ষের সময় সক্রিয় হয়ে উঠতে পারে। ভবিষ্যতে ভূগর্ভস্থ যু’দ্ধে’র প্রয়োজনে যু’দ্ধা’স্ত্র বা সাব’মেরিনের চেয়ে এটি নতুন ও উন্নত সুযোগ নিয়ে এসেছে। হার্বিন ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটির জার্নালে প্রকাশিত নিবন্ধে গবেষকরা এসব কথা বলেন।

সাবমেরিনটি কোথায় আছে তার সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। তবে ম্যাপের মাধ্যমে অনুমান করা হয়েছে, এটির অবস্থান চীনের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ ফুজিয়ানে বা তাইওয়ান উপকূলে। পূর্ব নির্ধারিত রুটে ১০ মিটার নিচে এর মহড়া চালানো হয়।

Sharing is caring!